২০১৫-২০১৬ কর বছরের জন্য প্রযোজ্য আয়কর হার

ক) ব্যক্তি শ্রেণীর কর হারঃ

(i)অর্থ আইন, ২০১৫ এর মাধ্যমে প্রত্যেক ব্যক্তি-করদাতা (অনিবাসী বাংলাদেশীসহ), হিন্দু যৌথ পরিবার, অংশীদারী ফার্ম, ব্যক্তি-সংঘ এবং আইনের দ্বারা সৃষ্ট কৃত্রিম ব্যক্তির করমুক্ত আয়ের সীমা ২,২০,০০০/- টাকা হতে বৃদ্ধি করে ২,৫০,০০০/- টাকা করা হয়েছে। ২০১৫-২০১৬ কর বছরের জন্য এরূপ করদাতাদের আয়ের উপর প্রযোজ্য কর হার নিম্নরূপে পুনর্বিন্যাস করা হয়েছেঃ-

ক্রমিক নং মোট আয় কর হার
০১ রথম ২,৫০,০০০/- টাকা পর্যন্ত মোট আয়ের উপর শুন্য
০২ পরবর্তী ৪,০০,০০০/- টাকা পর্যন্ত মোট আয়ের উপর ১০%
০৩ পরবর্তী ৫,০০,০০০/- টাকা পর্যন্ত মোট আয়ের উপর ১৫%
০৪ পরবর্তী ৬,০০,০০০/- টাকা পর্যন্ত মোট আয়ের উপর ২০%
০৫ পরবর্তী ৩০,০০,০০০/- টাকা পর্যন্ত মোট আয়ের উপর ২৫%
০৬ অবশিষ্ট মোট আয়ের উপর ৩০%

তবে, উপরোল্লিখিত কর হার করদাতার মর্যাদা নির্বিশেষে সিগারেট প্রস্ত্ততকারকের উৎপাদন ও বিক্রয় ব্যবসার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে না।

(ii)মহিলা করদাতা এবং ৬৫ বছর বা তদূর্ধ্ব বয়সের করদাতার করমুক্ত আয়ের সীমা ২,৭৫,০০০/- টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৩,০০,০০০/- টাকা করা হয়েছে।

(iii)প্রতিবন্ধী করদাতার করমুক্ত আয়ের সীমা ৩,৫০,০০০/- টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৩,৭৫,০০০/- টাকা করা হয়েছে।

(iv)মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের গেজেটভুক্ত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের করমুক্ত আয়ের সীমা ৪,০০,০০০/- টাকা হতে বৃদ্ধি করে ৪,২৫,০০০/- টাকায় নির্ধারণ করা হয়েছে। মু্ক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন নং মুবিম/প্রঃ৩/মু্ক্তিযোদ্ধা/গেজেট/২০০৩/৪৭৯, তারিখঃ ২০শে ভাদ্র ১৪১০/৪ঠা সেপ্টেম্বর ২০০৩ এ উল্লিখিত তালিকায় যে সকল যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার নাম অন্তর্ভুক্ত রয়েছে সে সকল করদাতা এ সুবিধা পাবেন।

(v)করমুক্ত সীমার ঊর্ধ্বের আয়ের ক্ষেত্রে প্রদেয় ন্যূনতম আয়করের পরিমাণ ঢাকা ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এলাকায় অবস্থিত করদাতাদের জন্য ৫,০০০/- টাকা, অন্যান্য সিটি কর্পোরেশন এলাকায় অবস্থিত করদাতাদের জন্য ৪,০০০/- টাকা এবং সিটি কর্পোরেশন ব্যতীত অন্যান্য এলাকায় অবস্থিত করদাতাদের জন্য ৩,০০০/- টাকায় নির্ধারণ করা হয়েছে। করমুক্ত সীমার ঊর্দ্ধে আয় আছে এমন করদাতার প্রদেয় আয়করের পরিমাণ বা বিনিয়োগজনিত কর রেয়াত বিবেচনার পর প্রদেয় আয়করের পরিমাণ ন্যূনতম আয়করের চেয়ে কম, শূন্য বা ঋণাত্মক হলেও তাকে প্রযোজ্য হারে ন্যূনতম আয়কর পরিশোধ করতে হবে।

খ)অর্থ আইন, ২০১৫ এর মাধ্যমে ব্যক্তি-করদাতার প্রদেয় আয়করের উপর প্রযোজ্য সারচার্জ আরোপের বিধানে পরিবর্তন আনা হয়েছে। আয়কর রিটার্নের সাথে দাখিলকৃত পরিসম্পদ, দায় ও খরচের বিবরণী (statement of assets, liabilities and expenses) তে প্রদর্শিত নীট পরিসম্পদের মূল্যমান ( total net worth) ২ কোটি ২৫ লক্ষ টাকার অধিক হলে নীট পরিসম্পদের উপর ভিত্তি করে নিম্নলিখিত হারে প্রদেয় আয়করের উপর সারচার্জ আরোপিত হবেঃ

ক্রমিক নং নীট পরিসম্পদের মূল্যমান সারচার্জের হার
(ক) দুই কোটি পঁচিশ লক্ষ টাকা পর্যন্ত শুন্য
(খ) দুই কোটি পঁচিশ লক্ষ টাকার অধিক কিন্তু দশ কোটি টাকার অধিক নয় ১০%
(গ) দশ কোটি টাকার অধিক কিন্তু বিশ কোটি টাকার অধিক নয় ১৫%
(ঘ) বিশ কোটি টাকার অধিক কিন্তু ত্রিশ কোটি টাকার অধিক নয় ২০%
(ঙ) ত্রিশ কোটি টাকার অধিক যে কোন অংকের উপর ২৫%

(গ) নূন্যতম সারচার্জ নির্ধারণঃ

অর্থ আইন, ২০১৫ এর মাধ্যমে ব্যক্তি-করদাতার প্রদর্শিত নীট পরিসম্পদের মূল্যমানের উপর নূন্যতম সারচার্জ আরোপের বিধান প্রবর্তন করা হয়েছে। নব প্রবর্তিত এ বিধান অনুযায়ী উক্ত সারচার্জ বিনিয়োগজনিত কর রেয়াত বিবেচনা পরবর্তী পদেয় আয়করের উপর প্রযোজ্য হবে। উপরে বর্ণিত হার অনুযায়ী কোন ব্যক্তি-করদাতার পদেয় সারচার্জের পরিমান ৩,০০০/- টাকার কম হলেও তাঁর নূন্যতম ৩,০০০/- টাকা সারচার্জ বাবদ পরিশোধ করতে হবে।

(ঘ) অনিবাসী ব্যক্তি-করদাতার কর হারঃ

অনিবাসী বাংলাদেশী ব্যতীত বাংলাদেশে অনিবাসী এমন ব্যক্তি-করদাতার কর হার ৩০% বলবৎ আছে। তবে অনিবাসী ব্যক্তি করদাতা বাংলাদেশী নাগরিক হলে তাঁর আয়ের ক্ষেত্রে বাংলাদেশী নিবাসীদের জন্য প্রযোজ্য হারে অর্থ্যৎ ০%, ১০%, ১৫%, ২০%, ২৫%, ৩০% আয়কর এবং সারচার্জ প্রদেয় হবে।

(ঙ) অবস্থান ভিত্তিক ক্ষুদ্র বা কুটির শিল্প থেকে উদ্ভুত আয়ের উপর আয়কর রেয়াতঃ

কোন ব্যক্তি-করদাতা যদি স্বল্প উন্নত এলাকা (less developed area) বা সবচেয়ে কম উন্নত এলাকায় (less developed area) অবস্থিত কোন ক্ষুদ্র বা কুটির শিল্পের মালিক হন এবং উক্ত কুটির শিল্পের দ্রব্যাদি উৎপাদনে নিয়োজিত থাকেন, তাহলে তিনি উক্ত ক্ষুদ্র বা কুটির শিল্প থেকে উদ্ভূত আয়ের উপর নিম্নবর্ণিত হারে আয়কর রেয়াত লাভ করবেন, যথাঃ-

ক্রমিক নং বিবরণ রেয়াতের হার
(ক) যেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট বছরের উৎপাদনের পরিমাণ পূর্ববর্তী বছরের উৎপাদনের পরিমাণের তুলনায় ১৫% এর অধিক, কিন্তু ২৫% এর অধিক নয় প্রদেয় আয়করের ৫%
(খ) যেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট বছরের উৎপাদনের পরিমাণ পূর্ববর্তী বছরের উৎপাদনের পরিমাণের তুলনায় ২৫% এর অধিক হয় প্রদেয় আয়করের ১০%

(চ) কোম্পানীর কর হারঃ

পাবলিকলি ট্রেডেড কোম্পানীর ক্ষেত্রে বিদ্যমান কর হার ২৭.৫% হতে হ্রাস করে ২৫% নির্ধারণ করা হয়েছে। তাছাড়া পাবলিকলি ট্রেডেড কোম্পানী ৩০% এর অধিক নগদ লভ্যাংশ প্রদান করলে ১০% হারে কর রেয়াত সুবিধা সংক্রান্ত পূর্বের বিধানটি রহিত করা হয়েছে। অপরদিকে ১০% এর কম লভ্যাংশ ঘোষণা করলে অথবা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন কর্তৃক নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ঘোষিত লভ্যাংশ প্রদান না করলে পাবলিকলি ট্রেডেড কোম্পানীর কর হার ৩৫% এর নির্ধারণ করার বিধানও রহিত করা হয়েছে।

তবে, নন-পাবলিকলি ট্রেডেড কোম্পানীর করহার গত বছরের ন্যায় ৩৫% বহাল রয়েছে।

২০১৫-২০১৬ কর বছরের জন্য কোম্পানীর আয়করের হার (লভ্যাংশ আয় ও মূলধনী আয় ব্যতীত) নিম্নরুপঃ

ক্রমিক নং কোম্পানীর ধরণ কর হার মন্তব্য
(ক) নন-পাবলিকলি ট্রেডেড কোম্পানী (স্টক এক্সচেঞ্জের তালিকাভুক্ত নয় এমন কোম্পানী) ৩৫%
(খ) পাবলিকলি ট্রেডেড কোম্পানী (স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত কোম্পানী) ২৫% শর্তঃ যদি এরূপ কোম্পানী যা Publicly traded company নয়, তার পরিশোধিত মূলধনের ন্যূনতম ২০% শেয়ার Initial Public Offerings (IPO) এর মাধ্যমে হস্তান্তর করে, তাহলে
এরূপ কোম্পানী উক্ত হস্তান্তর সংশ্লিষ্ট বছরে প্রযোজ্য আয়করের উপর ১০% হারে আয়কর রেয়াত লাভ করবে।
(গ) ব্যাংক, বীমা, আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহ (মার্চেন্ট ব্যাংক ব্যতীত)
(i)পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হলে
(ii)পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত না হলে
(iii)সরকার কর্তৃক ২০১৩ সালে অনুমোদিত ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের করের হার
৪০%
৪২.৫%
৪০%
(ঘ) মার্চেন্ট ব্যাংক ৩৭.৫%
(ঙ) সিগারেট প্রস্ত্ততকারক কোম্পানী ৩৭.৫%
(চ) মোবাইল ফোন অপারেটর কোম্পানী ৪৫% শর্তঃ (১) এরূপ কোন কোম্পানী
তার পরিশোধিত মূলধনের কমপক্ষে ১০% শেয়ার, যার মধ্যে Pre Initial Public Offering Placement ৫% এর অধিক হবে না, স্টক এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে হস্তান্তর করে Publicly traded company তে রূপান্তরিত হলে তার কর হার হবে ৪০%;

(২) এরূপ কোন কোম্পানী
যদি তার পরিশোধিত মূলধনের ২০% শেয়ার Initial Public Offerings (IPO) এর মাধ্যমে হস্তান্তর করে, তাহলে হস্তান্তর সংশ্লিষ্ট বছরে প্রযোজ্য আয়কর এর উপর ১০% হারে কর রেয়াত পাবে।

(ছ) অন্যান্য কর হারঃ

ক্রমিক নং কোম্পানীর ধরণ কর হার মন্তব্য
(ক) কোন কোম্পানী কর্তৃক প্রাপ্ত লভ্যাংশ আয়ের ক্ষেত্রে/বিদেশী কোম্পানীর মুনাফা প্রত্যাবাসন, যা লভ্যাংশ হিসেবে গণ্য, এর উপর ২০%
(খ) কোম্পানী ব্যতীত সিগারেট প্রস্তুতকারক অন্যান্য শ্রেণীর করদাতার সিগারেট উৎপাদন পূর্বক বিক্রয় ব্যবসার আয়ের উপর ৪৫%
(গ) সমবায় সমিতির আয়ের উপর ১৫%

অর্থ আইন, ২০১৫ অনুযায়ী ১ জুলাই, ২০১৫ খ্রিস্টাব্দ তারিখে আরদ্ধ কর বছরের জন্য আয়করের হার পরিশিষ্ট-১৯ এ দেখানো হয়েছে।